Boshurhat
Hotline:03223-56437
24-08-16 ,

আমাদের কথা

আজকের শিক্ষার্থীদের হাতে একদিন অর্পিত হবে জাতির সার্বিক দায়-দায়িত্ব। আর এই শিক্ষার্থীদের যোগ্য নেতৃত্বের উপযোগী করে গড়ে তোলার দায়িত্ব আমাদের সকলের। শিক্ষার লক্ষ্য হলো মানুষের ভিতরকার গুণাবলীর পরিপূর্ণ বিকাশ সাধন করা। একজন শিক্ষার্থীকে সুশিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হলে একটি ভালো প্রতিষ্ঠান যেমন প্রয়োজন তেমনি প্রয়োজন শিক্ষার সুন্দর পরিবেশ। আদর্শ পরিবেশে বেড়ে উঠা শিক্ষার্থীই প্রকৃত মানুষ হয়ে গড়ে উঠবে। শিক্ষার্থীকে তত্ত্বাবধান, সঠিক দিক-নির্দেশনা ও উৎসাহ অনুপ্রেরণার মাধ্যমে নিয়মানুবর্তিতা, শৃংখলাবোধ, নৈতিকজ্ঞান সামাজিক প্রশিক্ষণ শারীরিক ও মানসিক যোগ্যতা সম্পন্ন করে গড়ে তোলার জন্য চাই মনোবিজ্ঞান সম্মত যুগের চাহিদা পূরণের সক্ষম পরিকল্পিত বাস্তব ভিত্তিক শিক্ষা পদ্ধতির। তার জন্য প্রয়োজন একটি আদর্শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ৩য় বিশ্বের একটি দেশে যেখানে মানুষ অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান ও চিকিৎসার যোগানের পর নারী শিক্ষার কথা কল্পনা করতে পারে না তার উপর রয়েছে আবার ধর্মীয় অনুভূতি ও বিরাজমান অস্থির সামাজিক পেক্ষাপট যা অনেক নারীর উচ্চ শিক্ষার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করার ক্ষেত্রে বড় অন্তরায় হয়ে দাড়িয়েছে। বর্তমান সময়ে নারীকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠিয়ে অভিভাবক মহলের দু:চিন্তার কমতী থাকে না। কারণ নারীরা প্রতিনিয়তই ইভটিজিং এর শিকার হচ্ছে এবং সামাজিক নিরাপত্তা হীনতায় ভূগছে। স্বতন্ত্র নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী প্রেরণ করলে এ সকল সমস্যাবলী থেকে অভিভাবক মহল মুক্ত থাকতে পারে এবং এই ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নারীর স্বাভাবিক বিকাশ সহজতর হয়। আর এ বিষয়গুলোকে মাথায় রেখে নদীবিধৌত কোম্পানীগঞ্জের নারী সমাজের মনুষ্যত্বের বিকাশ, সুপ্তগুণাবলী জাগ্রত করে জাগতিক পিরিবেশের সাথে পরিচয় করিয়ে, অপরের করুণা ও দান দাক্ষিন্যের উপর নির্ভরশীল না হয়ে সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে নারীকে প্রতিষ্ঠার লক্ষে ২০১০ সালে জৈতুন নাহার কাদের মহিলা কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়। যেখানে একজন শিক্ষার্থীর জন্য আধুনিক যুগপোযোগী বিজ্ঞান ভিত্তিক, ধর্মীয়, নৈতিকতা ও পারিবারিক জীবনের জন্য প্রয়োজনীয় শিক্ষার সুযোগ রয়েছে। নিচক চাকচিক্য কিংবা বিপুল প্রপাগান্ডানয় বরং কলেজ শিক্ষকদের আন্তরিক সেবা, সর্বোত্তম দিক নির্দেশনা ও নৈতিক পরিবেশের কারনে এ কলেজ জয় করেছে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মন। প্রায় ৭ লক্ষ জনগোষ্ঠী অধ্যুষিত নদীবিধৌত কোম্পানীগঞ্জ বাসীর স্বপ্নের মহিলা কলেজটি, বিদ্যমান অস্থির সামাজিক প্রেক্ষাপটে মানব-সম্পদের নির্মল বিকাশের ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। আমাদের প্রচেষ্টা, অভিভাবকদের পরামর্শ ও সহযোগিতা শিক্ষার্থীদের পড়া-লেখার আগ্রহ এ কলেজকে তার কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে সক্ষম হবে বলে আমাদে

Our Teacher

Message

“সৃষ্টর্কিতা সৃষ্টরি সরো জীব করে মানুষকে সৃষ্টি করছেনে, মানুষ কল্পনা কর,ে কল্পনা থকেে ভাবনার সৃষ্টি হয়, আর সে ভাবনার ফসল হচ্ছে আধুনকি বশ্বি, তথ্য প্রযুক্তভিত্তিকি শক্ষিা র্অজন করে মানুষ এগয়িে যাচ্ছ।ে সে আধুনকিতার ছোঁয়া থকেে আমরা অনকে পছিয়ি।ে দশে ও সমাজ উন্নয়নরে মূল ভত্তিি শক্ষিা। সামাজকি, র্আথকি, সাংস্কৃতকি নানা কারণে এ দশেরে দরদ্রি মানুষ যমেন বঞ্চতি হয়ছেে তমেনি র্সবস্তরে ব্যাপক সংখ্যক নারীও এই শক্ষিা থকেে বঞ্চতি। একসময় নারী ছলি আলোহীন, প্রাণহীন, র্দুভদ্যে অন্তরালে শৃঙ্খলতি এক বন্দ।ি আজ নারীরা সইে বন্দদিশা থকেে বরেয়িে এসে আলোকতি জগতরে উন্মুক্ত ও উদার পরবিশেে দাঁড়াচ্ছ।ে দশে,সমাজ ও জাতি গঠনে নারী-পুরুষরে সমান ভুমকিা রয়ছে।”

প্রতিষ্ঠাতার বাণী

“সৃষ্টর্কিতা সৃষ্টরি সরো জীব করে মানুষকে সৃষ্টি করছেনে, মানুষ কল্পনা কর,ে কল্পনা থকেে ভাবনার সৃষ্টি হয়, আর সে ভাবনার ফসল হচ্ছে আধুনকি বশ্বি, তথ্য প্রযুক্তভিত্তিকি শক্ষিা র্অজন করে মানুষ এগয়িে যাচ্ছ।ে সে আধুনকিতার ছোঁয়া থকেে আমরা অনকে পছিয়ি।ে দশে ও সমাজ উন্নয়নরে মূল ভত্তিি শক্ষিা। সামাজকি, র্আথকি, সাংস্কৃতকি নানা কারণে এ দশেরে দরদ্রি মানুষ যমেন বঞ্চতি হয়ছেে তমেনি র্সবস্তরে ব্যাপক সংখ্যক নারীও এই শক্ষিা থকেে বঞ্চতি। একসময় নারী ছলি আলোহীন, প্রাণহীন, র্দুভদ্যে অন্তরালে শৃঙ্খলতি এক বন্দ।ি আজ নারীরা সইে বন্দদিশা থকেে বরেয়িে এসে আলোকতি জগতরে উন্মুক্ত ও উদার পরবিশেে দাঁড়াচ্ছ।ে দশে,সমাজ ও জাতি গঠনে নারী-পুরুষরে সমান ভুমকিা রয়ছে।”

প্রতিষ্ঠাতার বাণী

Notice Board

Our Other's Info

Important Link



          Copyright ::joitunnar mohila college-2016
                                                                                                       Website Develop by: Twoinsoft Technology                                       Total Website Visitor : http://www.hitwebcounter.com/